আজ রবিবার, ২০ মে ২০১৮ ইং

হাত থেকে মাংসের গন্ধ দূর করতে

 প্রকাশিত : ২০১৭-০৯-০২ ১১:২৬:৫৩

উত্তরপূর্ব প্রতিবেদন : শনিবার, ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৭: ঈদের দিনে ঝক্কিঝামেলা তো আছেই; তার আগ থেকেও চলে উৎসব আয়োজনের প্রস্তুতি। এই বাড়তি চাপ হাতের ত্বক করে দেয় খসখসে, ভেঙে যেতে পারে নখ। এছাড়া মাংস বা মসলার গন্ধও সহজে যেতে চায় না। তাই হাত কোমল ও দুর্গন্ধ মুক্ত রাখতে চাই বাড়তি কিছু পদক্ষেপ।

অ্যারোমা থেরাপিস্ট শিবানী দে বলেন, “ঈদে কাজের চাপ তুলনামূলক বেশি থাকে। মাংস নিয়ে কাজ করা এবং রান্না করতে গিয়ে নখ ভেঙে যাওয়া, চামড়া খসখসে হয়ে যাওয়া ইত্যাদি সমস্যা দেখা দেয়।”

“ঈদের আগে অবশ্যই হাত ও পা ভালোভাবে পরিষ্কার করে নখ ছোট করে কেটে নিতে হবে। এতে কাজ করার সময় নখ ভেঙে যাওয়ার ঝুঁকি থাকবে না। হাতের কোমলতা বজায় রাখতে এবং নখ শক্ত করতে নিয়মিত রাতে ঘুমানোর আগে অলিভ অয়েল হাতে ও নখে মালিশ করা উচিত।”

“সারাদিনের কাজ শেষে কুসুম গরম পানিতে কিছুক্ষণ নখ ও হাত ডুবিয়ে রাখতে হবে। এরপর হাত মুছে নখ এবং চারপাশে ভালো মানের কিউটিকল অয়েল মালিশ করে নিলে নখ ভালো থাকবে। কিউটিকল অয়েলের বদলে বাদাম ও জলপাইয়ের তেল একসঙ্গে সমপরিমাণে মিশিয়েও মালিশ করলে উপকার পাওয়া যাবে।”

ভঙ্গুর নখের সমস্যার ক্ষেত্রে এই রূপবিশেষজ্ঞ বলেন, “আমরা সাধারণত সামনে পেছনে নখ ফাইল করি। এতে নখ দুর্বল হয়ে যায়। প্রতিবার একইভাবে এবং একই দিকে নখ ফাইল করতে হবে। ধাতব ফাইলার এড়িয়ে চলাই ভালো। তাছাড়া গোসল বা হাত ভেজানোর পর নখ ফাইল করা উচিত নয়। কারণ এ সময় নখ নরম থাকে।”

মাংস কাটার ফলে হাতে 'বোটকা' একটা গন্ধ হয়ে থাকে, যা বেশ অস্বস্তিকর। সহজে এই গন্ধ যেতেও চায় না।

বিরক্তিকর গন্ধ দূর করার পরামর্শ দেন ‘রেড’ বিউটি পার্লারের কর্ণধার আফরোজা পারভিন।

* পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে হাতে ও পায়ে খানিকটা হলুদ মাখিয়ে নিতে পারেন। হলুদ দিয়ে ভালো করে হাত ঘষে তারপর হ্যান্ডওয়াশ বা সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

* হলুদ হাতের গন্ধ খুব দ্রুত দূর করবে। তবে হলদেভাব দূর করতে হাতে বেশি করে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে মালিশ করে টিস্যু বা নরম কাপড় দিয়ে মুছে ফেলতে পারেন। এতে হলদে রংটা উঠে আসবে।

* লেবুও গন্ধ দূর করতে বেশ কার্যকর। এক টুকরা লেবু হাতে ভালোভাবে ঘষে নিলে উপকার পাওয়া যাবে।

* লেবুতে অ্যাসিড থাকার কারণে তা অনেকের ত্বকে সহ্য হয় না। হাত রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। এক্ষেত্রে ভালো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা যেতে পারে। সরিষার তেলও হাতের নমনীয়তা বজায় রাখে এবং গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে।

* হাতের কাছে সবসময় ময়েশ্চারাইজার লোশন রাখতে হবে। কারণ আবহাওয়া পরিবর্তনের সময়ে হাত শুষ্ক হয়ে যায়। তাই প্রতিবারই হাত ও পা ধোয়ার পর ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

এসব পদ্ধতি ছাড়াও স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদন অবলম্বনে হাত থেকে দূর্গন্ধ দূর করার আরও কয়েকটি পন্থা এখানে দেওয়া হল।

লবণ: হাতের তালুতে খানিকটা লবণ নিয়ে সামান্য পানি দিয়ে দুহাতে ঘষে নিতে হবে। ভালোভাবে হাতের দুপাশেই ঘষা হলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। চাইলে লবণের সঙ্গে দুই ফোঁটা পছন্দসই এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন।

মাউথ ওয়াশ: মুখের গন্ধ দূর করার পাশাপাশি হাতের গন্ধ দূর করতেও এটি সমান উপযোগী। অল্প পরিমাণ মাউথ ওয়াশ হাতে নিয়ে ভালোভাবে ঘষে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

ভিনিগার: মাছ, মাংস, পেঁয়াজ ইত্যাদির তীব্র গন্ধ দূর করার জন্য এই মিশ্রণ বেশ কার্যকর।

হাতে খানিকটা ভিনিগার নিয়ে ভালোভাবে ঘষে বাতাসে শুকান। তারপর সাবান দিয়ে ধুয়ে লোশন লাগিয়ে নিন।
উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এমওআর

আপনার মন্তব্য

Developed By    IT Lab Solutions Ltd.

Helpline - +88 018 4248 5222