আজ বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮ ইং

ফোর জি যুগে বাংলাদেশ

 প্রকাশিত : ২০১৮-০২-১৯ ২০:২০:০০

উত্তরপূর্ব ডেস্ক: সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮: চতুর্থ প্রজন্মের মোবাইল প্রযুক্তি সেবা ফোর জি যুগে প্রবেশ করল বাংলাদেশ। সোমবার সন্ধ্যায় দেশের চার মোবাইল অপারেটরকে আনুষ্ঠানিকভাবে ফোর জি লাইসেন্স দিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাইকেল ফোলি, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, বাংলালিংকের সিইও এরিক অস এবং টেলিটকের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী গোলাম কুদ্দুস ফোর জি লাইসেন্স গ্রহণ করেন।

এই লাইসেন্স হাতে পাওয়ার পরপরই গ্রামীণফোন, রবি ও বাংলালিংক তাদের ফোর জি সেবা চালু করবে বলে আগেই জানিয়েছিল।

অপারেটররা বলছে, এই সেবা শুরুর মানে হল ‘ইন্টারনেট এক্সপ্রেসওয়েতে’ উঠে যাওয়ার পাশাপাশি ধীর গতির ভোগান্তি থেকে মুক্তি পেয়ে ইন্টারনেটে গ্রাহকরা এখন ছুটবেন চওড়া রাস্তায়।

ঢাকা ক্লাবে এই অনুষ্ঠানে বিটিআরসির চেয়ার‌ম্যান শাহজাহান মাহমুদ অপারেটদের শীর্ষ কর্মকর্তাদের হাতে ফোর জি লাইসেন্স তুলে দেন।

এ সময় ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল অপারেটর টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী গোলাম কুদ্দুস বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘খুব শিগগিরই’ ফোর জি সেবা চালু করবেন তারা।

ফোর জি লাইসেন্স নিতে গত জানুয়ারিতে আবেদন করে গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক, টেলিটক ও বন্ধ হয়ে যাওয়া অপারেটর সিটিসেল। তবে গত মঙ্গলবার নিলামে অংশ নিয়ে ফোর জি তরঙ্গ কিনে নিয়েছে শুধু গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক।

রবি তাদের হাতে থাকা তরঙ্গ প্রযুক্তি নিরপেক্ষতায় রূপান্তর করে ফোর জি সেবায় আসছে। টেলিটকও একইভাবে এই সেবা দেবে, যদিও তারা এখনও প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা সুবিধা পাওয়ার অপেক্ষায়।

বন্ধ হয়ে যাওয়া অপারেটর সিটিসেল ফোর জি তরঙ্গ নিলামে অংশ না নেওয়ায় পুনরায় চালু হওয়ার সম্ভবনা থেকে ছিটকে পড়েছে।

ফোর জি তরঙ্গের নিলাম এবং প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার সুবিধা বিক্রি করে ভ্যাটসহ পাঁচ হাজার ২৮৯ কোটি টাকা আয় করেছে সরকার।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এমওআর

আপনার মন্তব্য

Developed By    IT Lab Solutions Ltd.

Helpline - +88 018 4248 5222