আজ রবিবার, ২০ মে ২০১৮ ইং

ঢাবি উপাচার্য বাসভবনে হামলা, ভাংচুরের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৪

 প্রকাশিত : ২০১৮-০৪-৩০ ০০:২৬:১৩

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : সোমবার, ৩০ এপ্রিল ২০১৮: কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনের সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও মালামাল চুরির ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (দক্ষিণ) পুলিশের একটি দল।

এঁরা হলেন মো. রাকিবুল হাসান রাকিব (২৬), মো. মাসুদ আলম মাসুদ (২৫), মো. আলী হোসেন শেখ আলী (২৮) ও আবু সাইদ ফজলে রাব্বী সিয়াম (২০)। আজ রোববার বেলা একটার দিকে রাজধানীর চানখাঁরপুল এলাকা থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁদের কাছ থেকে ঘটনার দিন চুরি যাওয়া দুটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার চারজনের মধ্যে কেউ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নন।

ডিএমপি নিউজের খবরে রোববার এসব কথা বলা হয়েছে।

৯ এপ্রিল রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামানের বাসভবনে হামলা ঘটনায় পরদিন ১০ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা কর্মকর্তা এস এম কামরুল আহসানের দায়ের করা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

শাহবাগ থানায় করা মামলার অভিযোগে বলা হয়, ৯ এপ্রিল রাতে অজ্ঞাতনামা মুখোশধারী সন্ত্রাসী ও দুষ্কৃতকারীরা হাতে লোহার রড, পাইপ, হেমার, লাঠি ইত্যাদি নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের বাসভবনের দেয়াল টপকে ভেতরে ঢোকে। ভবনের মূল ফটকের তালা ভেঙে ভবনের ভেতরে অনধিকার প্রবেশ করে বাসভবনের মূল্যবান জিনিসপত্র, আসবাব, ফ্রিজ, টিভি, লাইট, কমোড, বেসিনসহ অনেক মালামাল ভাঙচুর করে ক্ষতিসাধন করে এবং মূল্যবান সম্পদ লুটতরাজ করে। তা ছাড়া ভবনে রক্ষিত দুটি গাড়ি পুড়িয়ে দেয় এবং আরও দুটিটি গাড়ি ভাঙচুর করে। ভবনে রক্ষিত সিসিটিভি ক্যামেরাগুলো ভেঙে ফেলে এবং সিসি ক্যামেরার ডিভিআরগুলো আগুনে পুড়িয়ে নষ্ট করে ফেলা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, গ্রেপ্তার চারজনের মধ্যে কেউ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নন। শুধু মাসুদ আলম ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসার ছাত্র। অপর তিনজন কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র নন। এর মধ্যে রাকিবের নামে বরিশাল ও লক্ষ্মীপুরে পাঁচটি মামলা রয়েছে।

গ্রেফতারকৃত চারজনকে সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করলে আদালত রাকিবকে চারদিন, আলীকে তিনদিন এবং মাসুদ ও সিয়ামকে দুইদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তারা বর্তমানে গোয়েন্দা পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

এদিকে এই চারজন গ্রেপ্তারে সন্তোষ জানিয়েছেন আন্দোলনকারী ‘ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’র আহ্বায়ক হাসান আল মামুন।

তিনি বলেন, “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে যারা আন্দোলন করেছে, তারা সবাই ঢাবির ছাত্র। উপাচার্যের বাসভবনে হামলার জন্য যে চারজনকে আটক করা হয়েছে বলে খবর পেয়েছি, তাদের কেউই ঢাবির ছাত্র না।

“তারা বহিরাগত- এর থেকে প্রমাণিত হয়, হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় ঢাবির শিক্ষার্থীদের কোনো অংশগ্রহণ ছিল না।”

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

আপনার মন্তব্য

Developed By    IT Lab Solutions Ltd.

Helpline - +88 018 4248 5222