আজ রবিবার, ২০ মে ২০১৮ ইং

কোটা সংস্কারের দাবিতে অচল শাবি: ক্লাস পরীক্ষা বন্ধ, মানববন্ধন, বিক্ষোভ

 প্রকাশিত : ২০১৮-০৪-০৯ ১৮:১৬:৩১

শাবি প্রতিনিধি : সোমবার, ০৯ এপ্রিল ২০১৮: কোটা সংস্কারের দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়। সোমবার সকাল থেকেই ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রধান ফটকে অবস্থান নেয়। গত রোববার রাতে রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেওয়া আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশি হামলার প্রতিবাদে এ কর্মসূচি পালন করে তারা। এদিকে শাখা ছাত্রলীগের বাধাদান সত্তে¡ও আন্দোলন অব্যাহত রাখে শিক্ষার্থীরা।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল সাতটা থেকে বেলা আড়াইটায় পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান নেয় শিক্ষার্থীরা। সকাল থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের ক্লাস পরীক্ষা বর্জন করে স্বর্তস্ফূর্ত ভাবে আন্দোলন করেছে শিক্ষার্থীরা। দুপুর সাড়ে বারটার দিকে শিক্ষার্থীদের একটি বিক্ষোভ মিছিল প্রধান ফটক থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে সমাবেশে মিলিত হয়। এসময় ‘মুজিবের বাংলায়, বৈষম্যের স্থান নাই’, ‘আমার ভাই এর রক্ত, বৃথা যেতে দিবো না’, ‘কোটা ১০ শতাংশে নামিয়ে আন, আনতে হবে’, ‘কোটা সংস্কার কর, করতে হবে’সহ বিভিন্ন ধরনের ¯েøাগান দিতে থাকে আন্দোলনকারীরা। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন বাসগুলোতে শিক্ষার্থী না নিয়ে ক্যাম্পাস ত্যাগ করতে দেখা যায়।
এদিকে সকাল থেকেই কোটা সংস্কার আন্দোলনকে সমর্থন করে এমন শিক্ষার্থীদেরকে ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ উঠেছে শাখা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। এসময় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও সিলেট বিভাগীয় কোটা সংস্কার আন্দোলনের সমন্বয়ক নাসির উদ্দিনকে হল থেকে বের হতেই দেয়নি। একপর্যায়ে তার মোবাইলও কেড়ে নেওয়া হয়। পরে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কয়েকজন শিক্ষার্থী প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রধান ফটকে অবস্থান নিলে তাদের ফটক থেকে উঠিয়ে দেন শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। হলে থাকেন ও কোটা সংস্কার আন্দোলনকে সমর্থন করেন, এমন শিক্ষার্থীদেরও জোর করে ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রধান ফটকে আসতে বাধা দেয়া হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।
আন্দোলনের শাবি শাখার সমন্বয়ক নাসির উদ্দিন বলেন, কোটা সংস্কারের দাবিতে শান্তিপূর্ণভাবে আমরা কর্মসূচি পালন করেছি। কোনো ধরনের বৈষম্যের সাথে আপোষ করা হবে না। কেন্দ্রের নিদের্শনা অনুযায়ী পরবর্তী কর্মসূচি জানিয়ে দেওয়া হবে।

শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন বলেন, ক্যাম্পাসে সহিংস কার্যক্রম যাতে না হয় সেজন্য আমরা গেইট থেকে তাদের সরিয়ে দিয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ করে আন্দোলন করার অধিকার কারো নেই। সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান বলেন, অহিংস আন্দোলনের অধিকার সবারই রয়েছে তবে ক্লাস পরীক্ষা বন্ধ করা যাবেনা, আমরা তাদের সেটা বলেছি। উল্লেখ, কোটা সংস্কারের দাবিতে গত রোববার রাতে রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেওয়া আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশ হামলা চালায়। এরই প্রতিবাদে আন্দোলনে নামে সারাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। সরকারি নিয়োগে কোটার পরিমাণ ৫৬ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশ করাসহ ৫ দফা দাবি আন্দোলন করে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।
উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এসএস/এমওআর

আপনার মন্তব্য

Developed By    IT Lab Solutions Ltd.

Helpline - +88 018 4248 5222